ঢাকা, বাংলাদেশ │ শনিবার, ২৮ মে ২০২২
প্রচ্ছদ » খেলাধুলা » যে কারণে নিলামে ধোনিকে কেনেনি আরসিবি

যে কারণে নিলামে ধোনিকে কেনেনি আরসিবি

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) চেন্নাই সুপার কিংসকে কল্পনা করলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে হলুদ জার্সির মহেন্দ্র সিং ধোনিকে।

এখন পর্যন্ত ধোনিবিহীন চেন্নাই সুপার কিংস দল একটি আসরও খেলেনি।

জানা গেছে, চেন্নাই নয়, ধোনিকে আইপিএলের প্রথম আসর থেকেই নিজেদের দলে ভেড়াতে পারত রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু (আরসিবি)।

ইচ্ছা করেই ২০০৮ সালের আইপিএলের প্রথম নিলামে ধোনিকে হাতছাড়া করেছে দলটির কর্তৃপক্ষ।

প্রায় এক যুগ পর সম্প্রতি সে কথা ইএসপিএন ক্রিকইনফোর কাছে ফাঁস করেছেন চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর তখনকার প্রধান নির্বাহী চারু শর্মা।

তিনি বলেন, ২০০৮ সালের নিলামে ধোনির মূল্য ওঠে ১৫ লাখ ডলার। তাই আমরা আর আগাইনি। একবার ভাবুন তো এত দাম দিয়ে ধোনিকে কিনে নেয়ার পর যদি তিনি ব্যর্থ হতেন! সে চিন্তা থেকেই ধোনিকে নিতে আগ্রহ দেখানো হয়নি সেবার।

তিনি আরও বলেন, আমরা শুরুতেই বুঝতে পারছিলাম, যেভাবে নিলামে ধোনির দাম চড়া হচ্ছে, তাতে আমরা হয়তো তাকে হারাব। কারণ খেলাটা তো একজনের না, দলীয় সাফল্যের ব্যাপার। ধরুন ধোনি কয়েক ম্যাচে শূন্য রানে আউট হয়ে গেল, তখন?

ধোনির মূল্য এত চড়া হয়েছিল কেন প্রশ্নে চারু শর্মা জানান, এর আগের বছর ২০০৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে হওয়া বিশ্ব টি-টোয়েন্টির প্রথম আসরে ধোনির অধিনায়কত্বে ভারত শিরোপা অর্জন করে। এতে আইপিএল নিলামে ধোনির কদর বহুগুণে বেড়ে যায়। সে আসরের ধোনির মূল্যই ছিল সর্বোচ্চ।

তবে টাকার মায়ায় ব্যাঙ্গালুরু ধোনিকে হাতছাড়া করলেও চেন্নাই ঠিকই ১৫ লাখ ডলারের বিনিময়ে তাকে দলে নিয়েছিল।

তার প্রতিদানও দিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। চেন্নাইয়ের হয়ে খেলা ১০ আসরের প্রতিটিতে দলকে ফাইনালে তুলেছেন ধোনি। এর মধ্যে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ২০১০, ২০১১ ও ২০১৮ সালের আসরে। চ্যাম্পিয়নস লিগেও ২০১০ ও ২০১৪ সালের আসরের শিরোপা জিতেছেন।

আইপিএল ইতিহাসে ১০০-এর ওপর জয় পাওয়া একমাত্র অধিনায়ক ধোনি। তার অধীনে ১৭৪ ম্যাচের মধ্যে ১০৪টিতে জিতেছে চেন্নাই।

মতামত দিন