ঢাকা, বাংলাদেশ │ মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » যুক্তরাষ্ট্র » যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে চীন, রাশিয়া ও ইরানের হস্তক্ষেপের অভিযোগ

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে চীন, রাশিয়া ও ইরানের হস্তক্ষেপের অভিযোগ

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এবারও হস্তক্ষেপের চেষ্টা করছে চীন, রাশিয়া ও ইরান। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যাতে দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য নির্বাচিত না হন, সেজন্য কাজ করছে চীন ও ইরান। আর ডেমোক্রেট পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন যাতে হোয়াইট হাউসে না আসতে পারেন, সেজন্য কাজ করছে রাশিয়া। শুক্রবার এমন অভিযোগ তুলে বিষয়টি নিয়ে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি শীর্ষ গোয়েন্দা সংস্থা। আগেরবারের নির্বাচনেও অবৈধ হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠেছিল রাশিয়ার বিরুদ্ধে। খবর বিবিসি ও সিএনএনের।

যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল কাউন্টারইনটেলিজেন্স অ্যান্ড সিকিউরিটি সেন্টারের (এনসিএসসি) পরিচালক উইলিয়াম আর. এভানিনা এক বিবৃতিতে বলেন, বিদেশি রাষ্ট্রগুলো প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ প্রভাবের মাধ্যমে নির্বাচনে হস্তক্ষেপের চেষ্টা করছে।

তিনি বলেন, আমরা দেখতে পেয়েছি, চীন চায় না ট্রাম্প পুনর্নিবাচিত হোক, আর রাশিয়া চায় জো বাইডেনকে হটাতে।

এভানিনার মতে, চীন চাইছে না ট্রাম্প দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসুন। কারণ বেইজিংয়ের কাছে ট্রাম্প অনেক বেশি আনপ্রেডিক্টেবল।

তিনি বলেন, রাশিয়ার সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং রুশ টেলিভিশনে পরোক্ষভাবে ট্রাম্পের পক্ষে প্রচার চালাচ্ছে। তারা বাইডেনের বিরুদ্ধে কাজ করছেন, কারণ তাকে রুশবিরোধী শক্তি হিসেবে মনে করা হয়।

এভানিনা আরও বলেন, অন্যদিকে ইরান অনলাইনে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে গুজব ছড়াচ্ছে। তারা অনলাইনে গুজব ছড়িয়ে নানা ভাবে ভোটারদের প্রভাবিত করতে চাইছে, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে এবং গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার উপর আমেরিকার ভোটারদের আস্থা নষ্ট করার চেষ্টা করছে।

২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্প শিবিরকে সাহায্য করতে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের পুরনো অভিযোগ নিয়েও এদিন কথা বলেন এভানিনা। যদিও ট্রাম্প ও রাশিয়া উভয়ই এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। নানা তদন্তে অভিযোগের পক্ষে শক্ত প্রমাণও পাওয়া যায়নি।

এদিকে নিউ জার্সিতে এক সংবাদ সম্মেলনে বিদেশি হস্তক্ষেপ নিয়ে প্রশ্ন করা হলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, তার প্রশাসন খুবই ঘনিষ্ঠভাবে বিষয়টির উপর নজর রাখছে। তিনি বলেন, আমরা তাদের সবার উপর নজর রাখছি, আমাদের খুবই সতর্ক থাকতে হবে। রাশিয়া, চীন এবং ইরান সবাই চায় আমি হেরে যাই।

আগামী ৩ নভেম্বরের ভোটে জিতে দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য নির্বাচিত হওয়ার বিষয়ে দারুণ আশাবাদী ট্রাম্প। নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবার ট্রাম্পের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী।

মতামত দিন