ঢাকা, বাংলাদেশ │ মঙ্গলবার, ৫ জুলাই ২০২২
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক » যুক্তরাষ্ট্র » মাথায় পশুর শিং পরা হামলাকারী গ্রেপ্তার

মাথায় পশুর শিং পরা হামলাকারী গ্রেপ্তার

খালি গায়ে মাথায় পশুর শিং ও চামড়া পরে মার্কিন পার্লামেন্ট ভবনে হামলায় অংশ নেয়া যুবককে গ্রেফতার করেছে ফেডারেল এজেন্ট। প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির ভাষণ দেয়ার ডেস্কে পা তুলে বসা ব্যক্তিকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। খবর রয়টার্সের।

৬ নভেম্বর ক্যাপিটল হিলে ডোনাল্ড ট্রাম্প সমর্থকদের তাণ্ডবের ঘটনায় এই দুই হামলাকারী আলোচিত হয়ে আসছিলেন। মাথায় শিং পরা যুবকের নাম জ্যাকব অ্যান্থনি চেঞ্চলি। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা গায়ে দিয়ে, সারা শরীরে ট্যাঁটু জড়িয়ে এ হামলায় অংশ নিয়েছিলেন। তাকে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল এজেন্ট শনিবার গ্রেফতার করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করেছে বলে জানিয়েছে দেশটির বিচার বিভাগ।

এফবিআই জানায়, গ্রেফতার অ্যান্থনি চেঞ্চলি জ্যাক অ্যাঞ্জেলি নামেও পরিচিত। গ্রেফতার অপর ব্যক্তির নাম অ্যাডাম ক্রিশ্চান জনসন।

জ্যাক অ্যাঞ্জেলি অ্যারিজোনা থেকে বেশ কিছু ষড়যন্ত্র তত্ত্ব প্রচার করেছেন, বিশেষ করে বিতর্কিত কিউঅ্যাননবিষয়ক।

উগ্র ডানপন্থী কিউঅ্যানন তত্ত্বের বিশ্বাসীরা মনে করেন, শয়তানের উপাসক ও শিশু নিপীড়ক একটি গোপন সংগঠন বিশ্বব্যাপী তৎপরতা চালাচ্ছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই গোপন সংগঠনের বিরুদ্ধে একাই লড়ে যাচ্ছেন। এ লড়াই চালিয়ে যেতে ট্রাম্পের ক্ষমতায় থাকা দরকার।

গত অক্টোবরে অ্যারিজোনা রিপাবলিককে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জ্যাক অ্যাঞ্জেলি জানিয়েছিলেন, তিনি মাথায় শিং ও চামড়া পরেন শুধু মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য। এতে তার কিউঅ্যানন তত্ত্ব প্রচারে সুবিধা হয়।

জ্যাক অ্যাঞ্জেলি জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আহ্বানে সাড়া দিয়েই তিনি ৬ জানুয়ারি ওয়াশিংটন ডিসির সমাবেশে এসেছিলেন।

ক্যাপিটল ভবনে নজিরবিহীন হামলার ঘটনায় বিশেষভাবে কয়েকজনের ছবি-ভিডিও ভাইরাল হয়। তাদের মধ্যে অ্যাঞ্জেলি ও জনসন রয়েছেন।

ডেমোক্র্যাটদলীয় নেতা জো বাইডেনের প্রত্যয়ন উপলক্ষে ৬ নভেম্বর মার্কিন কংগ্রেসে সভা চলাকালে হামলা চালায় ট্রাম্প সমর্থকরা। এতে ৫ জন নিহত হন। এ ঘটনায় প্রায় ১০০ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মতামত দিন