ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

বাংলাদেশি ফেসবুকারদেরও নজরদারি করেছে হ্যাকাররা

ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হ্যাকাররা বিশ্বজুড়ে যে ৫০ হাজার অ্যাকাউন্ট ব্যবহারকারীর ওপর নজরদারি করেছে, তাদের মধ্যে বাংলাদেশিরাও রয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) ফেসবুকের মূল প্রতিষ্ঠান মেটা এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

বিভিন্ন আড়িপাতার সফটওয়্যার তৈরিকারক প্রতিষ্ঠান ও তাদের গ্রাহকেরা প্রায় ১০০ দেশের অধিকারকর্মীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষজনকে নজরদারিতে রাখছিল। ওইসব প্রতিষ্ঠানসংশ্লিষ্ট অ্যাকাউন্ট ও পেজগুলো সরিয়ে নিয়েছে মেটা।

এ সংক্রান্ত ১৭ পৃষ্ঠার প্রতিবেদন প্রকাশ করে মেটা বলেছে, ব্যবস্থা নেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে ইসরায়েলের ব্ল্যাক কিউব, ভারতের বেলট্রক্স। ইসরায়েলের প্রতিষ্ঠান কবওয়েবস টেকনোলজিস, কগনাইট, ব্লুহোয়াক সিআইয়ের অ্যাকাউন্ট মুছে দিয়েছে ফেসবুক। এছাড়া উত্তর মেসিডোনিয়ার সাইট্রক্স ও চীনের আরেকটি প্রতিষ্ঠানের অ্যাকাউন্টও মুছে দেওয়া হয়েছে।

মেটার প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, কবওয়েবসের নজরদারিতে রয়েছে বাংলাদেশ, হংকং, যুক্তরাষ্ট্র, নিউজিল্যান্ড, মেক্সিকো, সৌদি আরব, পোল্যান্ডসহ অন্যান্য দেশের নাগরিকেরা। মেক্সিকো ও হংকংয়ে সরকারের কর্মকর্তা, বিরোধী নেতা ও অধিকারকর্মীদের ওপর প্রায়ই নজরদারি করা হতো।

এতে বলা হয়েছে, কবওয়েবসের অফিস রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। তাদের নিজেদের ও তাদের গ্রাহকদের প্রায় ২০০টি অ্যাকাউন্ট মুছে ফেলা হয়েছে। ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটারসহ জনসাধারণ ব্যবহার করে এমন ওয়েবসাইটে নজরদারি করার প্রযুক্তি বিক্রি করে কবওয়েবস। এছাড়া কবওয়েবসের প্রযুক্তি ব্যবহার করে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করা যায়।

মেটার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তথ্য হাতিয়ে নেওয়া এবং নীতিমালা ভঙের দায়ে তাদের প্ল্যাটফর্মগুলোয় থাকা এমন প্রায় দেড় হাজার পেজ ও অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া যেসব ব্যবহারকারীর ওপর নজরদারি চালানো হচ্ছিল, তাদের বিষয়টি জানানো হয়েছে।

মতামত দিন