ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২২

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ: প্রভাব পড়বে উপকূলে

মাত্র তিনদিন আগে একটি নিম্নচাপ তৈরী হতে না হতেই ফের বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপের তৈরী হয়েছে।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, বঙ্গোপসাগরের সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাব পড়বে উপকূলীয় অঞ্চলে। যার ফলে দেশের কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

বঙ্গোপসাগরের সুস্পষ্ট লঘুচাপটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। এর ফলে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় এলাকা, পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা ও আশপাশের এলাকায় বৃষ্টিপাত হচ্ছে।

আজ (বুধবার) সারাদিন থেমে থেমে এরকম বৃষ্টিপাত চলবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

এর আগে গুলাব নামে স্বল্প শক্ষির এই ঘূর্ণিঝড়টি পরে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ ও উড়িশ রাজ্যে আঘাত হানে। সেটার প্রভাব কাটতে না কাটতেই দেখা গেল একটি লঘুচাপ তৈরি হয়েছে। অবশ্য ঘূর্ণিঝড় গুলাব যখন তৈরি হয়, তখনই পাওয়া গিয়েছিল এই লঘুচাপের পূর্বাভাস।

মাছ ধরার নৌকা এবং ট্রলারগুলোকে উপকূলের কাছাকাছি চলাচল করতে বলা হয়েছে।

ঢাকার আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলছেন, সুস্পষ্ট একটি লঘুচাপ সরে উত্তরপশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও ওই এলাকার বাংলাদেশ-পশ্চিমবঙ্গে অবস্থান করছে।

অবশ্য সাগর ছেড়ে মাটিতে উঠে আসার কারণে এটা আর ঘনীভূত হওয়ার সম্ভাবনা নেই, বলছেন কুদ্দুস।

তিনি জানান, লঘুচাপটি হয়তো আর দুই-একদিন থাকতে পারে। কিন্তু মাটিতে উঠে আসার কারণে দুর্বল হয়ে পড়বে। সেটি পশ্চিমবঙ্গের ভেতর দিয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে এগোবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

লঘুচাপের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝড়ো আবহাওয়াও বয়ে যেতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সেই সঙ্গে বৃষ্টি বা বজ্র-বৃষ্টিও হতে পারে।

বাংলাদেশের সমুদ্র তীরবর্তী বন্দরগুলোকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। মাছ ধরার নৌকা এবং ট্রলারগুলোকে উপকূলের কাছাকাছি চলাচল করতে বলা হয়েছে।

মতামত দিন