ঢাকা, বাংলাদেশ │ শনিবার, ২৮ মে ২০২২
প্রচ্ছদ » ঢাকা » ফেসবুক পেজ খুলে প্রতারণা, স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার

ফেসবুক পেজ খুলে প্রতারণা, স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ঢাকা উদ্যান হাউজিং সোসাইটি থেকে ফেসবুক পেজ খুলে প্রতারণার অভিযোগে জেরিন ওরফে জেনিফার তালুকদার (২৯) ও স্বামী প্রবাল তালুকদারকে (৩৮) গ্রেফতার করেছে সিআইডি সাইবার পুলিশের একটি বিশেষ টিম। এ সময় প্রতারণায় ব্যবহৃত পাচটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার মোহাম্মদপুর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মামলা রুজু করা হয়েছে। আজ বুধবার প্রতারক দম্পতি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ১৬৪ ধারা জবানবন্দী দিয়েছেন। স্বামী-স্ত্রী উভয়ে বিভিন্ন ধরনের মাদকের নেশায় আসক্ত ছিল।

জানা যায়, জেরিন ওরফে জেনিফার তালুকদার তার নিজের পরিচালিত All Essential By-Zarin নামক ফেসবুক পেজে বিদেশি নামিদামি ব্র্যান্ডের কসমেটিক আইটেম বিক্রির উদ্দেশ্যে পোস্ট দিয়ে থাকেন। প্রথমত জেরিন নিজের ব্যক্তিগত ব্যবহারের উদ্দেশ্য কিছু বিদেশি প্রোডাক্ট এনেছিল। সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে মানুষকে অনলাইনে বিভিন্ন নামিদামি ব্র্যান্ডের প্রোডাক্ট এনে দেবে বলে তার পেজে পোস্ট দেয়।

জেরিনের এই পোস্ট দেখে অনেকে ক্রয়ের জন্য অর্ডার দিয়ে থাকে। জেরিন তাদেরকে মালামাল না দিয়ে করোনা মহামারীর কথা বলে আশ্বস্ত করতে থাকে। এছাডা কাস্টমস ট্যাক্স কার্গো সমস্যার নানাবিধ কারণ ও অজুহাত দেখিয়ে কালক্ষেপণ করে ক্রেতা সাধারণকে মালামাল না দিয়ে বিভিন্নভাবে প্রতারিত করে আসছিল।

আফসিন একজন অনলাইন ব্যবসায়ী তার নিজের ব্যবসার জন্য জেরিনের নিকট থেকে পণ্য ক্রয়ের জন্য অর্ডার দিয়েছিলেন। জেরিন আফসিনকে সত্যমিথ্যা অনেক কিছু বুঝিয়ে বিদেশি কসমেটিক আইটেম ইমপোর্ট করে এনে দেওয়ার কথা বলে বিভিন্ন ধাপে তিন লাখ ৭২ হাজার টাকা গ্রহণ করেন। আন্তরিক ব্যবহার এবং স্মার্টনেস দেখিয়ে তিনি আফসিনের মন জয় করেন।

বিভিন্ন খুচরা ক্রেতার নিকট থেকে যে টাকা গ্রহণ করতেন জেরিন তা তিনি আফসিনের বিকাশ একাউন্টে আনিয়ে সহজে বিশ্বাস স্থাপন করেন। বিকাশে আসা টাকাগুলো জেরিন তার স্বামী প্রবাল তালুকদারকে আফসিনের কাছে পাঠিয়ে গ্রহণ করত এবং মাঝে মাঝে বিভিন্ন বিকাশ এজেন্টের মাধ্যমে সংগ্রহ করে নিত। নিজেকে গোপন রেখে জেরিন কখনো লাইভে আসতো না। মালামাল না দিয়ে যখন জেরিনের বিভিন্ন অজুহাত এবং কথাবার্তা অসংলগ্ন মনে হয় তথন আফসিন বুঝতে সক্ষম হন জেরিন তার সাথে বড় ধরনের প্রতারণা করছে।

এ ঘটনায় আফসিন সিআইডি সাইবার পুলিশ সেন্টারে অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে সিআইডি সাইবার পুলিশের অনুসন্ধানে প্রতারণার সত্যতা পায়। এছাড়াও সিআইডি জানতে পারে জেরিনের অনিয়ম এবং ব্যক্তিগত বিশৃঙ্খলার নানা তথ্য। আফসিনের মত অনেক ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে জেরিনের অন্তত বিশ লাখ টাকা প্রতারণার তথ্য পায় সিআইডি। পরে এ ঘটনায় জেরিন ওরফে জেনিফার তালুকদার ও স্বামী প্রবাল তালুকদারকে গ্রেফতার করে সিআইডি।

মতামত দিন