দিনে তিনটির বেশি প্রমোশনাল এসএমএস নয়: বিটিআরসি

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিটিআরসি) জানিয়েছে, একজন গ্রাহককে দিনে তিনটির বেশি প্যাকেজ সংক্রান্ত প্রমোশনাল এসএমএস দিতে পারবে না কোনো অপারেটর।

মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) ডাটা প্যাকেজ নির্দেশিকা ও টেক্সট-অনলি ফেসবুক ও ডিসকভার চালু অনুষ্ঠানে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। বিটিআরসিতে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বলা হয়, দেশের সব মোবাইল অপারেটরের নিয়মিত, গ্রাহককেন্দ্রিক বিশেষ প্যাকেজ ও রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট প্যাকেজ; এই তিন ধরনের প্যাকেজ থাকবে। একটি অপারেটরের নিয়মিত ও গ্রাহককেন্দ্রিক বিশেষ প্যাকেজ মিলিয়ে সর্বোচ্চ প্যাকেজ হবে ৮৫টি। তবে এর মধ্যে কোনোটি এককভাবে ৫০টির বেশি হতে পারবে না।

অনুষ্ঠানে আরও বলা হয়, মোবাইল ফোন অপারেটররা রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট কাজের জন্য সর্বোচ্চ ১০টি প্যাকেজ ব্যবহার করতে পারবে। প্যাকেজের ভিন্নতা নির্ধারণে দুটি প্যাকেজের মধ্যে ন্যূনতম পার্থক্য হবে ১০০ মেগাবিট ডেটা অথবা ১০ মিনিট টকটাইম অথবা উভয়ই। সব প্যাকেজের মেয়াদ ৩, ৭, ১৫ বা ৩০ দিনের হতে হবে।

যেকোনো নিয়মিত প্যাকেজ চালুর পর বাজারে উক্ত প্যাকেজের ন্যূনতম স্থায়িত্ব হবে এক মাস। যেকোনো গ্রাহককেন্দ্রিক বিশেষ প্যাকেজ চালুর পর ওই প্যাকেজের ন্যূনতম স্থায়িত্ব হবে সাত দিন। এক্ষেত্রে মোবাইল অপারেটররা ওই গ্রাহককেন্দ্রিক বিশেষ প্যাকেজ বাতিল করার ১৫ দিন পর বাতিলকৃত প্যাকেজের জায়গায় নতুন গ্রাহককেন্দ্রিক বিশেষ প্যাকেজ চালু করতে পারবেন।

এই নির্দেশিকা আগামী ১ মার্চ থেকে কার্যকর হবে।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। আরও উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. খলিলুর রহমান, বিটিআরসির সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের মহা-পরিচালক ব্রি. জে. মো. নাসিম পারভেজ এবং মোবাইল অপারেটরদের প্রতিনিধিরা।

মতামত দিন