ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২২

মামলা না তুলে নেওয়ায় যুবলীগ নেতার হাত-পা ভাঙল আসামি

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় মামলা তুলে না নেওয়ায় মো. আবু ছালে (৪০) নামে এক যুবলীগ নেতাকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দিয়েছে আসামিপক্ষ।

শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের বগীবাজারে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত যুবলীগ নেতা আবু ছালেকে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রাতেই খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহত আবু ছালে বগী গ্রামের মো. আ. রহমান খলিফার ছেলে এবং বগী বন্দর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বাজারের একজন মৎস্য ব্যবসায়ী।

আবু ছালের মা নুরুন্নাহার বেগম বলেন, দেড় মাস আগে আমার ছেলেকে অন্যায়ভাবে মারধর করে স্থানীয় ইউপি সদস্য রিয়াদুল পঞ্চায়েতের ভাই মো. আসাদুল পঞ্চায়েত।

এর পর সালিশবৈঠক বসার কথা বললেও তা আর হয়নি। পরে আমার ছেলে শরণখোলা থানায় ওদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করে। সেই মামলা তুলে নিতে শনিবার রাত ৮টার দিকে আসাদুল পঞ্চায়েত, ফারুক খান ও পলাশ মিলে আমার ছেলের মৎস্য আড়তে হামলা চালিয়ে তার হাত-পা ভেঙে দেয়।

পরে খবর শুনে গিয়ে দেখি ছেলে অজ্ঞান অবস্থায় দোকানের সামনে পড়ে আছে। তখন স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য মো. রিয়াদুল পঞ্চায়েত বলেন, একটি কম্পিউটারের ডিক্স নিয়ে প্রথমে দুপক্ষের মধ্যে ঝগড়া হয়। এ সময় আসাদুলকে মারধর করে হানিফসহ কয়েকজন। পরে আসাদুলসহ ১০-১২ জন এক হয়ে বগী গিয়ে ছালেকে পেয়ে মারধর করে।

শরণখোলা থানার ওসি মো. সাইদুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। আসামি ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মতামত দিন