ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

থাইল্যান্ডে অনলাইন জুয়ার ৫০০ ওয়েবসাইট বন্ধ

থাইল্যান্ডে অনলাইন জুয়ার ৫০০ ওয়েবসাইট বন্ধ

থাইল্যান্ড পুলিশের অপরাধ দমন বিভাগ (সিএসডি) দেশের ১৪টি প্রদেশের ৬৩টি স্থানে ১০০টিরও বেশি জুয়ার ফ্র্যাঞ্চাইজি এবং ৫০০টি ওয়েবসাইট বন্ধ করতে অভিযান শুরু করেছে। সোমবার (১৪ নভেম্বর) পুলিশের তরফ থেকে এ অভিযানের ঘোষণা দেওয়া হয়। ব্যাংকক পোস্টের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, খোন কায়েনের প্রাদেশিক পুলিশ ব্যুরোর প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে সিএসডি কমান্ডার মেজর জেনারেল মন্ট্রি থেসখুনের নেতৃত্বে এ অভিযান শুরু হয়। এ অভিযানের নাম দেওয়া হয়েছে ‘অপারেশন হনুমান’।

এ অভিযানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন সংস্থার ৩৫০ জনেরও বেশি কর্মকর্তা রয়েছেন। ব্যাংকক, চিয়াং মাই, খোন কায়েন, ফিটসানুলক, মহাসারখাম, সারাবুরি ও সা কাউ প্রদেশকে কেন্দ্র করে অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।

মন্ট্রি থেসখুন জানান, এরআগে ২২ সেপ্টেম্বর ‘ফ্যাট ফাস্ট’ অনলাইন জুয়া নেটওয়ার্কের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে ১০টি প্রদেশ থেকে অন্তত ৩০ জন সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করেছিল সিএসডি। এ ছাড়া ৪৬০ মিলিয়ন বাইট মূল্যের ৪০০টি সম্পদ জব্দ করা হয়েছিল। এরপর সোমবার থেকে আবার অভিযান শুরু হলো।

অভিযানটি খোন কায়েনে অনলাইন জুয়া মাফিয়াদের সন্দেহভাজন সহপ্রধান সুওয়াতের মালিকানাধীন একটি বাড়ি থেকে শুরু হয়েছে। পুলিশ সেখান থেকে মূল্যবান জিনিসপত্র জব্দ করেছে। তবে সেখানে সুয়াতকে পাওয়া যায়নি।

পুলিশ পরে সুওয়াতের শাশুড়ির বাড়িতেও অভিযান চালিয়েছে। ওই বাড়ি থেকেও বন্দুকসহ মূল্যবান জিনিসপত্র জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া খোন কায়েনে প্রফুট নামের সন্দেহভাজন আরও একজনের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে সিএসডি। তবে প্রফুট বাড়িতে ছিলেন না। সেই বাড়ি থেকেও শতাধিক বিয়ারব্রিক পুতুল জব্দ করা হয়েছে।

মন্ট্রি থেসখুন আরও জানিয়েছেন, সন্দেহভাজনদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের হাতে ২৩টি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে। এর মধ্যে ব্যাংকের কর্মকর্তা, প্রোগ্রামার, এটিএম মেশিনের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিরা রয়েছেন। পুলিশ ইতিমধ্যে কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তবে মন্ট্রি থেসখুন গ্রেপ্তারকৃতদের নাম প্রকাশ করেননি।

মতামত দিন