মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১

ঢাবিতে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের ১০ নেতাকর্মী আহত

ঢাবিতে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের ১০ নেতাকর্মী আহত

ঢাবিতে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের ১০ নেতাকর্মী আহত

ঢাবিতে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের ১০ নেতাকর্মী আহত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে এসে ছাত্রলীগের হামলার মুখে পড়েছে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। হামলায় ছাত্রদলের অন্তত ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে ঢাবি ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে রক্তাক্ত অবস্থায় দুইজনকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

আজ বিকেল সাড়ে চারটার দিকে ছাত্রদলের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার নতুন কমিটির ২০-২৫ জন নেতাকর্মী নীলক্ষেতের মুক্তি ও গণতন্ত্র তোরণের সড়ক দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কার্যালয়ের দিকে যাত্রা শুরু করে। এর মিনিট তিনেকের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রিয়াজুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মুনিম শাহরিয়ার মুনের নেতৃত্বে লাঠি, স্টাম্প নিয়ে তাদের উপর হামলা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

হামলার সাথে সাথেই সরে যান ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এসময় ছাত্রদলের কয়েকজনকে ঘিরে পেটান ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

ঢাবিতে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের ১০ নেতাকর্মী আহত

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ উপাচার্যের সাথে সাক্ষাৎ করতে বিকেল ৪টা ২৮ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সভাপতি খোরশেদ আলম ও সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে ঢুকছিলেন সংগঠনের ৩০ থেকে ৩৫ নেতা-কর্মী। এ সময় স্যার এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের এক কর্মী মিছিলের সামনে দাঁড়িয়ে যান। ছাত্রদলের নেতাদের সাথে তাঁর ধাক্কাধাক্কি ও তর্কাতর্কি শুরু হয়। একপর্যায়ে উপাচার্যের জন্য ছাত্রদলের আনা ফুলের তোড়া ভেঙে ফেলেন ওই কর্মী। পরে এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রিয়াজুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল নেতা-কর্মী দৌড়ে এসে লাঠিসোঁটা ও স্ট্যাম্প দিয়ে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের পেটাতে শুরু করেন। আরেকটি অংশ ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ধাওয়া করে। এতে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যান।

ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা চলে যাওয়ার পর নীলক্ষেত মোড়ে আসেন কবি জসীম উদদীন হল শাখা ছাত্রলীগ ও বিজয় একাত্তর হল শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ধাওয়া করে ক্যাম্পাস থেকে বের করে দেওয়ার পর এই দুই হলের নেতা-কর্মী ও এ এফ রহমান হলের নেতা-কর্মীরা নীলক্ষেতের মুক্তি ও গণতন্ত্র তোরণের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। ১৫ মিনিটের মতো ছাত্রদলবিরোধী স্লোগান দেওয়ার পর তাঁরা ক্যাম্পাসের দিকে চলে যান।

ছাত্রলীগের এ হামলাকে ন্যক্কারজনক বলে আখ্যা দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগের হামলায় আমাদের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। আমরা এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাই ও হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’

আরও পড়ুন:

আরও পড়ুন

বাংলার শিরোনাম ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

সর্বশেষ সংবাদ