শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১

ঢাকা জেলা আ.লীগের সম্মেলন শুরু, লাখো জনতায় পরিপূর্ণ ময়দান

ঢাকা জেলা আ.লীগের সম্মেলন শুরু, লাখো জনতায় পরিপূর্ণ ময়দান

ঢাকা জেলা আ.লীগের সম্মেলন শুরু, লাখো জনতায় পরিপূর্ণ ময়দান

ঢাকা জেলা আ.লীগের সম্মেলন শুরু, লাখো জনতায় পরিপূর্ণ ময়দান

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন জাতীয় সংগীত ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে। শনিবার (২৯ অক্টোবর) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের শেরেবাংলা নগর পুরাতন বাণিজ্য মেলার মাঠে বেলা ২টা ২০ মিনিটে শুরু হয়েছে এ সম্মেলন।

দলের প্রতীক নৌকার আদলে তৈরি করা হয়েছে সম্মেলনের মঞ্চ আর মঞ্চের সামনে সাবেক বাণিজ্য মেলার সুবিশাল মাঠ লাখো নেতা-কর্মীতে পরিপূর্ণ হয়ে গেছে।

ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টারে ছেয়ে গেছে সম্মেলন স্থল। তৈরি হয়েছে শুভেচ্ছা তোরণ। ত্রি-বার্ষিক এই সম্মেলন ৮ বছর পর হওয়ায় নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে।

এদিকে সম্মেলন সফল করতে জেলার পাঁচটি উপজেলার মধ্যে ধামরাই উপজেলা, সাভার উপজেলা, আশুলিয়া থানা, কেরানীগঞ্জ উপজেলা, কেরানীগঞ্জ মডেল থানা, দোহার উপজেলা ও নবাবগঞ্জ উপজেলাসহ সাতটি ইউনিটের নেতাকর্মীরা কাজ করেছেন। পাশাপাশি আগামী সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে বিএনপি-জামায়াতের আন্দোলন মোকাবিলায় কাকে দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে, এ নিয়েও ব্যাপক আলোচনা চলছে।

বর্তমান সভাপতি বেনজীর আহমদ বলেন, ‘সম্মেলন সফল করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। শেখ হাসিনা যার হাতে জেলার নেতৃত্ব দেবেন তার নেতৃত্বে আমরা কাজ করে যাব। ’

ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাতাব নির্ঝর বলেন, এ সমাবেশে লাখো জনতার ঢল নেমেছে। আওয়ামী লীগের প্রতি দেশবাসী, ঢাকাবাসীর আস্থার প্রতিফলন আজআজকের এ সমাবেশ।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বিশেষ অতিথি থাকবেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, কামরুল ইসলাম; যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম; বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেনসহ অন্য কেন্দ্রীয় নেতারা।

এছাড়া সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নজরুল হামিদ বিপু। আর প্রধান বক্তা কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা যায়, এবারের কমিটিতে চমক থাকতে পারে। দলকে আরও সুসংগঠিত ও গতিশীল করতে নবীন-প্রবীণের সমন্বয় ঘটিয়ে এবারের জেলা কমিটি হতে পারে।

সম্মেলনকে ঘিরে সাজ সাজ রব পড়েছে ঢাকায়। নেতাকর্মী-সমর্থকরা রাতের ঘুম হারাম করে নিজ নিজ প্রার্থীকে জয়ী করতে লবিং, গ্রুপিং ও প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন নিরলসভাবে। পদ পেতে হাইকমান্ডে আগ্রহীদের লবিং-লিয়াঁজো চলছে জোরেশোরে। কেন্দ্রীয় নেতাদের পাশাপাশি উপজেলার তৃণমূল নেতাকর্মীদেরও কদর বেড়েছে। তাদের সমর্থন আদায়ে পদ প্রত্যাশীদের যোগাযোগ রয়েছে সার্বক্ষণিক।

ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে সভাপতি পদ প্রত্যাশীদের মধ্যে দুজনের নাম বেশি শোনা যাচ্ছে। তারা হলেন বর্তমান সভাপতি ধামরাইয়ের বেনজীর আহমদ এবং জেলা আওয়ামী লীগের ১ নম্বর সদস্য এবং জ্বালানি ও বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী কেরানীগঞ্জের নসরুল হামিদ বিপু।

অপরদিকে সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশীদের মধ্যে আছেন বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ঢাকা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দোহার উপজেলার মাহবুবুর রহমান, ১ নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ধামরাই উপজেলার বাইশাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এবং ঢাকা জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি, ঢাকা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মরহুম সামসুদ্দোহা খান মজলিশের ভাগ্নে সাভার উপজেলার মাসুদ চৌধুরী ও বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি নবাবগঞ্জের পনিরুজ্জামান তরুণ।

আরও পড়ুন:

আরও পড়ুন

বাংলার শিরোনাম ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

সর্বশেষ সংবাদ