রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

আফিফ-সৈকতের ব্যাটে ১৪৫ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

আফিফ-সৈকতের ব্যাটে ১৪৫ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

ইনিংসের শুরুটা ভালো হয়েছিল। উইকেটে গিয়ে আশা দেখিয়েছিলেন দুই ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত ও সৌম্য সরকার। কিন্তু এই জুটি ভাঙার পর দ্রুতই সেই আশা মিলিয়ে গেল। ডাচদের বোলিংয়ের সামনে শুধু হতাশাই দেখলো বাংলাদেশ। যেতে পারল না বেশিদূর। কোনো মতে নেদারল্যান্ডসকে ১৪৫ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ।

আজ সোমবার বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪৪ রান করেছে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৮ রান করেছেন আফিফ হোসেন।

হোবার্টের বেলেরিভ ওভালে টসের জয়ের সুবিধা লুফে নেয় নেদারল্যান্ডস। বৃষ্টি সিগ্ধ আবহাওয়ায় বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় তারা। এরপর চেপে ধরে বোলিং দিয়ে।

যদিও ইনিংসের শুরুটা ভালো করে বাংলাদেশ। ওপেনিং জুটিতে ৪৭ রান করেন শান্ত ও সৌম্য। এই জুটি ভাঙলেই এলোমেলো হয়ে যায় সব। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে সৌম্যর বিদায়ে জুটি ভাঙে। পল ফন মিকেরেনের শর্ট বলে মিডউইকেটে সহজ ক্যাচ দিয়ে ফেরেন বাঁহাতি ওপেনার। ১৪ বলে দুই চারে ১৪ রান করেন সৌম্য।

পরের ওভারের প্রথম বলে ফেরেন শান্ত। বাঁহাতি স্পিনার টিম প্রিঙ্গলের বলে ছক্কা মারতে গিয়ে তিনিও ক্যাচ দেন মিডউইকেটে। ২০ বলে ২৫ রান করেন শান্ত।

এরপর উইকেটে এলেন আর গেলেন সাকিব আল হাসান ও লিটন দাস। ফন বিকের শর্ট অব লেংথ বলে কাটা পড়েন লিটন (৯)। এরপর সাজঘরের পথে হাঁটেন সাকিব(৭)। হাল ধরতে পারেননি ইয়াসিরও। তিনি বোল্ড হয়ে ফেরেন ৩ রানে।

৭৬ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর চরম চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ। সেখান থেকে উদ্ধার করতে জুটি বাধেন আফিফ ও সোহান। এই জুটিতে ৪৪ রান করেন দুজন। আফিফ ফিরে যান ৩৮ রানে আর সোহান ফেরেন ১৩ রানে। দ্রুত উইকেট হারানোর মিছিলে শেষ পর্যন্ত কোনো মতে ১৪৪ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন:

আরও পড়ুন

বাংলার শিরোনাম ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

সর্বশেষ সংবাদ